ইউক্রেনে গাড়িবহরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ২৩ বেসামরিক ব্যক্তি নিহত

দক্ষিণ ইউক্রেনের ঝাপোরিঝঝিয়া অঞ্চলে গাড়িবহরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ২৩ জন নিহত হয়েছেন।
২ সারি যানবাহনের মাঝে ক্ষেপণাস্ত্রটি মাটিতে গর্ত তৈরি করেছে। ছবি: রয়টার্স
২ সারি যানবাহনের মাঝে ক্ষেপণাস্ত্রটি মাটিতে গর্ত তৈরি করেছে। ছবি: রয়টার্স

দক্ষিণ ইউক্রেনের ঝাপোরিঝঝিয়া অঞ্চলে গাড়িবহরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ২৩ জন নিহত হয়েছেন।

আজ শুক্রবার গাড়িবহরটি ঝাপোরিঝঝিয়ার শহরের কাছাকাছি একটি গাড়ি পার্ক করার জায়গা থেকে যাত্রী ও মালামাল নিয়ে রুশদের দখলে থাকা ঝাপোরিঝঝিয়া প্রদেশের দক্ষিণাঞ্চলের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। উল্লেখ্য, ঝাপোরিঝঝিয়ার বেশ কিছু অঞ্চল রুশদের দখলে থাকলেও ঝাপোরিঝঝিয়া শহর নামে পরিচিত রাজধানী এখনও ইউক্রেনের দখলে আছে।  

আজ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে। 

২ সারি যানবাহনের মাঝে ক্ষেপণাস্ত্রটি মাটিতে গর্ত তৈরি করেছে। এই আঘাতের প্রভাবে চারপাশে কাদা ছড়িয়ে পড়ে এবং গাড়িগুলোতে শ্র্যাপনেল আঘাত করে। সেখানে মূলত কিছু গাড়ি ও ৩টি ভ্যান ছিল। প্রতিটি বাহনের জানালার কাঁচ ভেঙ্গে যায়। রয়টার্সের সংবাদদাতারা প্রায় ১২টি মরদেহ দেখেন। ৪টি মরদেহ গাড়ির ভেতরে ছিল।

ঝাপোরিঝঝিয়ার প্রাদেশিক গভর্নর ওলেকসান্দার স্টারুখ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টেলিগ্রামে লেখেন, 'এ পর্যন্ত ২৩ জন নিহত ও ২৮ জন আহত হয়েছেন। ভুক্তভোগীদের প্রত্যেকেই বেসামরিক ব্যক্তি।'

স্টারুখ আরও জানান, গাড়িবহরের যাত্রীরা রুশদের দখলে থাকা অঞ্চল থেকে তাদের আত্মীয়দের খুঁজে নিয়ে নিরাপদ জায়গায় যাওয়ার পরিকল্পনা করছিলেন।

ক্রেমলিনের একটি মিলনায়তনে ইউক্রেনের অধীগ্রহণকৃত ১৫ শতাংশ ভূখণ্ডকে আনুষ্ঠানিকভাবে রাশিয়ার অংশ হিসেবে ঘোষণা দেওয়ার অনুষ্ঠান শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে এই হামলা হয়।

এ অনুষ্ঠানে সশরীরে যোগ দেবেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের। পরবর্তীতে ক্রেমলিনের প্রাচীরের কাছে রেড স্কোয়ারে একটি পপ গানের কনসার্ট হওয়ার কথা রয়েছে।

ক্রেমলিনের প্রাচীরের কাছে রেড স্কোয়ারে একটি পপ গানের কনসার্টের আয়োজন হচ্ছে। ছবি: রয়টার্স
ক্রেমলিনের প্রাচীরের কাছে রেড স্কোয়ারে একটি পপ গানের কনসার্টের আয়োজন হচ্ছে। ছবি: রয়টার্স

ইতোমধ্যে গণভোট আয়োজনের মাধ্যমে দনেৎস্ক, লুহানস্ক, খেরসন ও ঝাপোরিঝঝিয়াকে রাশিয়ার অংশ হিসেবে ঘোষণার উদ্যোগের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে পশ্চিমের দেশগুলো। জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস এই উদ্যোগকে জাতিসংঘের সনদের লঙ্ঘন বলে অভিহিত করেন।

শুক্রবারের অনুষ্ঠানে পুতিন বক্তব্য দেবেন এবং অধিগ্রহণকৃত এলাকায় ক্রেমলিনের সমর্থনপুষ্ট ৪ নেতার সঙ্গে দেখা করবেন।

ইতোমধ্যে মস্কো চত্তরে একটি বড় আকারের মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। সেখানে ভিডিও স্ক্রিণ ও বিলবোর্ডে ইউক্রেনের ৪টি অঞ্চলকে রাশিয়ার অংশ হিসেবে দেখানো হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানান, যুক্তরাষ্ট্র কখনোই ইউক্রেনের ভূখণ্ডে রাশিয়ার দাবিকে স্বীকৃতি দেবে না। তিনি গণভোটের প্রতি নিন্দা জানান।

বৃহস্পতিবার প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের নেতাদের এক সম্মেলনে তিনি বলেন, '(গণভোটের) ফলাফল মস্কোতে তৈরি করা হয়েছে।'

জাতিসংঘের মহাসচিব গুতেরেস সাংবাদিকদের বলেন, 'ভূখণ্ড দখলের সিদ্ধান্তের কোনো আইনি মূল্য নেই এবং এটি নিন্দার যোগ্য।'

 

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh economic crisis

We need humility, not hubris, to turn the economy around

While a privileged minority, sitting in their high castles, continue to enjoy a larger and larger share of the fruits of “development,” it is becoming obvious that the vast majority are increasingly struggling.

5h ago