পাওয়ার প্লেতে ৩ উইকেট তুলে ভারতকে চাপে ফেলল প্রোটিয়ারা

টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে চাপে আছে ভারতীয়রা। পাওয়ার প্লে শেষে তাদের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৪৫ রান।
ছবি: এএফপি

ম্যাচের প্রথম ওভারে বাঁহাতি পেসার মার্কো ইয়ানসেনকে তিনটি চার মারলেন বিরাট কোহলি। তবে ভারতের দুর্দান্ত শুরু টিকল না বেশিক্ষণ। দ্বিতীয় ওভারেই আক্রমণে স্পিন নিয়ে এলো দক্ষিণ আফ্রিকা। তাতে সুফল মিলল হাতেনাতে। টানা দুটি চার হজমের পর দ্রুত ঘুরে দাঁড়িয়ে রোহিত শর্মাকে আউট করে দিলেন কেশব মহারাজ। এক বল পর বাঁহাতি স্পিনারের শিকার হলেন রিশভ পান্ত। খানিক বাদে সূর্যকুমার যাদবকে সাজঘরের পথ দেখালেন ডানহাতি পেসার কাগিসো রাবাদা।

শনিবার বার্বাডোজের কেনসিংটন ওভালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসরের ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। এই প্রতিবেদন লেখার সময়, টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে চাপে আছে ভারতীয়রা।

পাওয়ার প্লে শেষে রোহিতের দলের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৪৫ রান। ফর্ম হারিয়ে নিজেকে খুঁজতে থাকা ওপেনার কোহলি ১৯ বলে ২৫ ও ব্যাটিং অর্ডারের ওপরে উঠে আসা অক্ষর প্যাটেল ৬ বলে ৮ রানে খেলছেন।

প্রথম ওভারে কোহলির নৈপুণ্যে ১৫ রান তোলা ভারত দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে রোহিতের কল্যাণে পৌঁছে যায় বিনা উইকেটে ২৩ রানে। এরপর ঘটে ছন্দপতন। মহারাজের অফ স্টাম্পের অনেক বাইরের বল সুইপ করার চেষ্টায় কাটা পড়েন ছন্দে থাকা রোহিত। স্কয়ার লেগে তার নিচু ক্যাচ নেন হেইনরিখ ক্লাসেন। ভারতের অধিনায়কের সংগ্রহ ৫ বলে ৯ রান।

বিপজ্জনক পান্ত টিকতেই পারেননি। তিনিও সুইপ করতে গিয়ে বিপদ ডেকে আনেন। ব্যাটের কানায় লেগে পেছনে চলে যাওয়া বল মাথার ওপর থেকে গ্লাভসে জমান কুইন্টন ডি কক। ২ বল খেলে পান্ত রানের খাতা খুলতে ব্যর্থ হন।

পঞ্চম ওভারে দলীয় ৩৪ রানে পতন হয় ভারতের তৃতীয় উইকেটের। পান্তের মতো আরেক বিপজ্জনক ব্যাটার সূর্যকুমারকেও থিতু হতে দেয়নি দক্ষিণ আফ্রিকা। তার শাফল করে মারা শট সীমানার আগেই আটকে যায়। ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগে বল মুঠোয় জমান ক্লাসেন। ৪ বলে ৩ রানে থামেন সূর্যকুমার।

Comments