নদীভাঙন

বালু-পাথর উত্তোলনে মৃত্যুর মুখে ৩ নদী

স্থানীয়দের অভিযোগ, নির্বিচারে বালু উত্তোলনের ফলে নদীভাঙন, বর্ষাকালে আকস্মিক বন্যা এবং ফসলি জমি, ঘরবাড়ি, জীববৈচিত্র্য ও জীবিকার ক্ষতি হচ্ছে।

মানিকগঞ্জ / নদীভাঙন থেকে বসতভিটা ও ফসলি জমি রক্ষায় বালুমহাল ইজারা না দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বেউথা-আন্ধারমানিক ও পৌলী মৌজায় বালুমহালের ইজারা দেওয়ার কারণে প্রতি বছর ফসলি জমি নদীতে বিলীন হচ্ছে। এতে স্থানীয় কৃষকরা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

১০ বছরে তিস্তা-ধরলার ভাঙনে বাস্তুহারা সাড়ে ১২ হাজার পরিবার

এক সময়ের সচ্ছল নরেন্দ্রের কপালে এখন ঠিকমতো খাবারও জোটে না। তার চার ছেলে মহানন্দ বর্মণ, নিরানন্দ বর্মণ, ভবেশ বর্মণ ও শ্রীধর বর্মণ বাস করছেন আলাদা সংসারে। তারা সবাই পানি উন্নয়ন বোর্ডের বাঁধের ওপর ঘর...

জামালপুর / ব্রহ্মপুত্রে হঠাৎ ভাঙন, নদীগর্ভে অন্তত ৬০ বাড়িঘর

পানি উন্নয়ন বোর্ড ভাঙনকবলিত এলাকায় জিও ব্যাগ ফেললেও, ভাঙন ঠেকানো যাচ্ছে না।

জামালপুরে কমছে বন্যার পানি, বাড়ছে ভোগান্তি

জামালপুরে যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি কমতে শুরু করেছে। তবে দেখা দিয়েছে ভাঙন। এ ছাড়াও, শুকনো খাবারের তীব্র সংকট চলছে।

চাঁদপুরে নদীভাঙন রোধ করতে নৌকাতেই ভোট দিতে হবে: শিক্ষামন্ত্রী

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকারের কাছে সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা বেশি থাকে এবং তা তিনি পূরণ করে আসছেন বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

নদীভাঙনে বাস্তুচ্যুত হচ্ছে লাখো মানুষ

সিইজিআইএস বলছে, গত ২২ বছরে পদ্মা ও যমুনা নদীর ভাঙনে ৫ লাখেরও বেশি মানুষ গৃহহীন হয়েছে।

ফরিদপুর / পদ্মার ভাঙনে গৃহহীন শতাধিক পরিবার, ঝুঁকিতে বিদ্যালয়-মসজিদ-কমিউনিটি ক্লিনিক

ফরিদপুর সদরের নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নে নদীর পাড় ভাঙতে ভাঙতে ইউসুফ মাতুব্বরের ডাঙ্গী গ্রামের ভেতরে ৩০০-৪০০ মিটার ঢুকে গেছে।

লালমনিরহাট / বালু তোলায় হুমকিতে তিস্তা

নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু তুলতে ও বিক্রি করতে গেড়ে উঠেছে শক্তিশালী সিন্ডিকেট।

আগস্ট ১২, ২০২৩
আগস্ট ১২, ২০২৩

নদীভাঙনে বাস্তুচ্যুত হচ্ছে লাখো মানুষ

সিইজিআইএস বলছে, গত ২২ বছরে পদ্মা ও যমুনা নদীর ভাঙনে ৫ লাখেরও বেশি মানুষ গৃহহীন হয়েছে।

জুলাই ৯, ২০২৩
জুলাই ৯, ২০২৩

পদ্মার ভাঙনে গৃহহীন শতাধিক পরিবার, ঝুঁকিতে বিদ্যালয়-মসজিদ-কমিউনিটি ক্লিনিক

ফরিদপুর সদরের নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নে নদীর পাড় ভাঙতে ভাঙতে ইউসুফ মাতুব্বরের ডাঙ্গী গ্রামের ভেতরে ৩০০-৪০০ মিটার ঢুকে গেছে।

মে ১৭, ২০২৩
মে ১৭, ২০২৩

বালু তোলায় হুমকিতে তিস্তা

নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু তুলতে ও বিক্রি করতে গেড়ে উঠেছে শক্তিশালী সিন্ডিকেট।

জানুয়ারি ৩১, ২০২৩
জানুয়ারি ৩১, ২০২৩

লালমনিরহাটে তিস্তার ১২ পয়েন্টে অবৈধ বালু উত্তোলন

লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর অন্তত ১২ স্থান থেকে অবৈধভাবে বালু তোলা হচ্ছে। গত ২ মাস ধরে তথা শুষ্ক মৌসুমে তিস্তা থেকে বালু তোলা হচ্ছে। বালু বিক্রি করতে গড়ে উঠেছে শক্তিশালী সিন্ডিকেট।

জানুয়ারি ২৩, ২০২৩
জানুয়ারি ২৩, ২০২৩

যমুনায় অসময়ের ভাঙন, বিলীন অর্ধশতাধিক বাড়ি

সিরাজগঞ্জের চৌহালি উপজেলার মানুষের জন্য নদীভাঙন নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার। বছরের বেশিরভাগ সময় ভাঙনের ঝুঁকি থাকলেও শীতকালে শান্ত থাকে যমুনা, ঝুঁকিমুক্ত থাকেন নদীর পাড়ের বাসিন্দারা।

নভেম্বর ১৯, ২০২২
নভেম্বর ১৯, ২০২২

দুধকুমার নদীর ভাঙনে মানচিত্র থেকে হারিয়ে গেছে ৩ গ্রাম

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার চর ভূরুঙ্গামারী ইউনিয়নের ৩টি গ্রাম মধ্যপাড়া, উত্তরপাড়া ও ইসলামপুর। গ্রামগুলোর নাম এখন শুধু কাগজে-কলমে। এসব গ্রামের আর কোনো অস্তিত্ব নেই। দুধকুমার নদীর ভাঙনে...

অক্টোবর ১৪, ২০২২
অক্টোবর ১৪, ২০২২

‘নদীভাঙন থাকি হামাকগুলাক বাঁচান’

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের পশ্চিম ধনিরাম এলাকায় ধরলা নদীতে তীব্র ভাঙন দেখে দিয়েছে। ভাঙনে নদীগর্ভে বিলীন হচ্ছে বসতভিটা, ফসলি জমি, ফলের বাগান ও নানা স্থাপনা। নদী ভাঙন রোধে দ্রুত...

সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২
সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২

৫ দিনে তিস্তায় বিলীন ২০০ বসতভিটা, ৫০০ বিঘা আবাদি জমি

লালমনিরহাটে ১০টি পয়েন্টে তিস্তা নদীর ভাঙন দেখা দিয়েছে। হাতীবান্ধা উপজেলার ডাউয়াবাড়ী এলাকায় তিস্তার ভাঙন তীব্র আকার ধারণ করেছে। গত ৫ দিনে নদীভাঙনে তিস্তার উদরে বিলীন হয়েছে কমপক্ষে ২০০টি বসতভিটা ও...

সেপ্টেম্বর ১২, ২০২২
সেপ্টেম্বর ১২, ২০২২

নদীভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা পাইয়ে দিতে ঘুষ নিয়েছেন ২ ইউপি সদস্য

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার অর্জুনা ইউনিয়নের নদীভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের সরকারি প্রণোদনার অর্থ পাইয়ে দিতে স্থানীয় ২ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে এ বিষয়ে গঠিত তদন্ত কমিটি।

সেপ্টেম্বর ১১, ২০২২
সেপ্টেম্বর ১১, ২০২২

‘ত্রাণ নয়, বাঁধ চাই’

নদীপাড়ে সমবেত হয়েছিলেন ভাঙনকবলিত পরিবারের শত শত মানুষ। সবার মুখে একটি স্লোগান, ‘হামরাগুলা ইলিপি-টিলিপ চাই না, ভাঙনরোধে বাঁধ চাই। হামাক বাঁধ দিলে হামরাগুলা বাঁচি থাকির পামো।’