নির্বাচন

হিরো আলমের ‘ফল পাল্টানোর’ অভিযোগ খতিয়ে দেখার নির্দেশ সিইসির

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) এবং বগুড়া-৬ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল আলমের অভিযোগ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এবং সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহমুদ হাসানকে খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। 
বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়া নির্বাচন কমিশন অফিসে যান হিরো আলম। ছবি: সংগৃহীত

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) এবং বগুড়া-৬ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল আলমের অভিযোগ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এবং সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহমুদ হাসানকে খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। 

আজ বৃহস্পতিবার সকালে সিইসি টেলিফোনে এ নির্দেশ দেন বলে জ্যেষ্ঠ নির্বাচন কর্মকর্তা মাহমুদ হাসান দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, 'যেহেতু হিরো আলম ফলাফল নিয়ে অভিযোগ করে একটি সংবাদ সম্মেলন করেছেন এবং টিভির টকশোতেও একই অভিযোগ করেছেন, সেটা দেখে সিইসি স্যার আমাকে ফলাফল পুনরায় যাচাইয়ের নির্দেশ দিয়েছেন। সেইসঙ্গে ফলাফলের সব কপি ঢাকায় পাঠাতে বলেছেন সিইসি।'

মাহমুদ হাসান বলেন, 'আমরা পরে ফলাফল আবার যাচাই করে দেখেছি, সব ঠিক আছে। আজ বিকেল ৩টায় হিরো আলম আমাদের অফিসে এসেছিলেন। আমরা তাকে ইভিএম মেশিনের ফলাফলের কপি এবং কেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসারের সই করা ফলাফলের কপি দিয়েছি।'

গতকাল বগুড়া-৪ ও ৬ আসনে পরাজয়ের পর সংবাদ সম্মেলন করে 'ষড়যন্ত্রের' অভিযোগ তোলেন। পরে আজ দুপুরে বগুড়া নির্বাচন কমিশন অফিসে যান হিরো আলম।

নির্বাচনের ফলাফলের কপি পেয়ে তিনি সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, 'এই ফলাফলের কপি নিয়ে আমি হাইকোর্টে রিট করব।'

তিনি আরও বলেন, 'এই সরকারের সময়ে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। এই পরিস্থিতি থাকলে আমি আর হাইকোর্টেও যাব না এবং আমি আর কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব না।'

গতকাল রাত সাড়ে ১০টায় হিরো আলম তার নিজ বাসায় একটি সংবাদ সম্মেলন করেন। সেখানে তিনি অভিযোগ করেন, বগুড়া-৪ আসনে ভোটে কারচুপি না হলেও, গণনার সময় ফল পাল্টানো হয়েছে। ষড়যন্ত্র করে তাকে হারিয়ে দেওয়া হয়েছে।

 

Comments