নির্বাচন

‘আমি কিছু বলব না’ আচরণবিধি লঙ্ঘনে নিষ্ক্রিয়তার প্রশ্নে সিইসি

শাহজাহান ওমর কেন ইসিতে এসেছিলেন, এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ওটা আমার বিষয় না।
সিইসি
সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল। ফাইল ছবি

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের ক্ষেত্রে কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ার প্রশ্ন এড়িয়ে গেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে ইসি কার্যালয়ে সাংবাদিকরা সিইসির কাছে জানতে চান যে, আচরণবিধি লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে শোকজ ছাড়া আর কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না কমিশন।

এ বিষয়ে ইসির অবস্থান কী, এমন প্রশ্ন করা হলে সিইসি বলেন, 'আমার যা বলার ছিল আমি বলেছি। এর বাইরে আমি কিছু বলব না।'

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, 'নমিনেশন সাবমিশন পর সংক্ষুব্ধরা আপিল করতে পারেন। আমাদের রিটার্নিং অফিসাররা পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেন। কিছু কিছু প্রত্যাখান করেন।'

তিনি বলেন, 'যারা প্রত্যাখ্যাত হন বা যাদের নমিনেশন পেপার গ্রহণ করা হয়, দুটোর বিরুদ্ধেই আপিল করা যায়। ৫ থেকে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত আপিল করতে পারবেন।'

'আপিল শুনানি হবে ১০ থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। আমরা তখন পুরো কমিশন বসে আপিলগুলো শুনব। শুনে আমরা সিদ্ধান্ত দেবো,' যোগ করেন তিনি।

শাহজাহান ওমর কেন ইসিতে এসেছিলেন, এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, 'ওটা আমার বিষয় না।'

এবারের সংসদ নির্বাচনে আগ্রহী প্রার্থীদের মধ্যে মোট ৭৩১ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। আজ আপিলের প্রথম দিনে ২৬ জন স্বতন্ত্রসহ ৪২ প্রার্থী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কমিশনে আপিল করেছেন।

 

Comments