বাংলাদেশ

ভূপর্যটক রামনাথের ভিটায় পাঠাগার-বাইসাইকেল মিউজিয়াম গড়ার দাবি

বাইসাইকেলে পৃথিবী ভ্রমণ করা দুঃসাহসিক বাঙালি ভূপর্যটক ও বাংলা সাহিত্যে সবচেয়ে বেশি ভ্রমণকাহিনী লেখক রামনাথ বিশ্বাসের হবিগঞ্জের বসতভিটা দখলমুক্ত করে পাঠাগার ও বাইসাইকেল মিউজিয়াম গড়ে তোলার দাবি জানিয়েছে পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণ কমিটির নেতৃবৃন্দ।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ভূপর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণ কমিটির যুগ্ম-আহ্বায়ক কবি, কথা সাহিত্যিক ও নাট্যকার রুমা মোদক। ছবি: স্টার

বাইসাইকেলে পৃথিবী ভ্রমণ করা দুঃসাহসিক বাঙালি ভূপর্যটক ও বাংলা সাহিত্যে সবচেয়ে বেশি ভ্রমণকাহিনী লেখক রামনাথ বিশ্বাসের হবিগঞ্জের বসতভিটা দখলমুক্ত করে পাঠাগার ও বাইসাইকেল মিউজিয়াম গড়ে তোলার দাবি জানিয়েছে পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণ কমিটির নেতৃবৃন্দ।

আজ রোববার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

বাংলাদেশ ট্রাভেল রাইটার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আশরাফুজ্জামান উজ্জ্বল স্বাক্ষরিত লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কমিটির যুগ্ম-আহ্বায়ক কবি, কথা সাহিত্যিক ও নাট্যকার রুমা মোদক। এসময় উপস্থিত ছিলেন ভূপর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণ কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক কবি শাহেদ কায়েস এবং ভূপর্যটক রামনাথ বিশ্বাস ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক টিপু চৌধুরী।

সেসময় রুমা মোদক বলেন, 'হবিগঞ্জের মানুষের কাছে ভূপর্যটক রামনাথ বিশ্বাসকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কিছু নেই। তিনি আমাদের হবিগঞ্জের তো বটেই, বাংলাদেশের তথা গোটা বাংলার গর্ব। প্রায় শত বছর আগে হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার বিদ্যাভূষণ পাড়ার রামনাথ বিশ্বাস বাইসাইকেল নিয়ে বেরিয়েছিলেন ভূপর্যটনে। তিনি হিন্দু-মুসলিম নির্বিশেষে সবাইকে ভালোবাসতেন। ১৯৪৬ সালের গ্রেট কলকাতা দাঙ্গায় নিজের জীবন বাজি রেখে বাঁচিয়েছিলেন ৩৯ জন মুসলিমের জীবন। কলকাতায় তার নামে রয়েছে রামনাথ বিশ্বাস সড়ক, অথচ নিজভূমে তিনি হয়ে গেছেন পরবাসী। বানিয়াচংয়ে রামনাথের স্মৃতিবিজড়িত বাড়িটি দখল করে রেখেছেন আবদুল ওয়াহেদ মিয়া নামে আল-বদর পরিবারের এক সদস্য।'

সংবাদ সম্মেলনে ভূপর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণ কমিটির সদস্যরা জানান, দখলদার ওয়াহেদ মিয়া একসময় জামায়াত-বিএনপির রাজনীতি করতেন। পরে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে ওয়ার্ড কমিটির সভাপতির পদও বাগিয়ে নিয়েছিলেন। দলীয় পরিচয়ের জোরে রামনাথের বাড়ি দেখতে যাওয়া পর্যটক, বাইসাইকেল রাইডার ও সাংবাদিকের ওপর বিভিন্ন সময় হামলা চালিয়েছেন। সর্বশেষ গত ১১ সেপ্টেম্বর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সাংবাদিক রাজীব নূরসহ সাংবাদিক মোশাহেদ মিয়া, তৌহিদ মিয়া ও আলমগীর রেজা নিগৃহীত হয়েছেন দখলদার ওয়াহেদ ও তার পুত্রদের হাতে।

সেসময় তারা বলেন, আমরা রামনাথ বিশ্বাসের বাড়ি দখলমুক্ত করার বিষয়টি সরকারের নজরে আনার জন্য আজ হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবে এই সংবাদ সম্মেলনে সমবেত হয়েছি। আগামীকাল বিকেল ৪টায় বানিয়াচংয়ে ১ নম্বর ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে সাংবাদিক ও সুধীজনের সঙ্গে মত বিনিময় করা হবে। এ ছাড়া, ২৭ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় হবিগঞ্জ টাউনহল থেকে রামনাথের বাড়ির পথে বাইসাইকেল শোভাযাত্রা রয়েছে। ওইদিন সকাল ১১টায় বানিয়াচং শহীদ মিনারে সাংবাদিক দেবব্রত চক্রবর্তী বিষ্ণু প্রতীকী অনশন পালন করবেন।

বাইসাইকেল শোভাযাত্রা নিয়ে রামনাথের বাড়ি বিদ্যাভূষণ পাড়া ঘুরে বানিয়াচং শহীদ মিনারে বিকেল ৪টায় সমাবেশ শেষে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

এ আন্দোলনকে সচল রাখার লক্ষ্যে লেখক, সাংবাদিক ও সংস্কৃতিকর্মীরা মিলে গঠন করেছেন 'ভূপর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণ কমিটি'। রামনাথের বাড়িটি পুনরুদ্ধারের পর এ কমিটির পক্ষে সেখানে ভ্রমণবিষয়ক বইয়ের একটি বিশেষায়িত পাঠাগার এবং বাইসাইকেল মিউজিয়াম গড়ে তোলার দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন কমিটির আহ্বায়ক ভূপর্যটক ও লেখক আশরাফুজ্জামান উজ্জ্বল, যুগ্ম-আহ্বায়ক কবি শাহেদ কায়েস ও রামনাথ বিশ্বাস ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক টিপু চৌধুরী।

সংবাদ সম্মেলনে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাশেদ আহমদ খান, দৈনিক ইত্তেফাকের জেলা প্রতিনিধি মনসুর উদ্দিন আহমেদ ইকবাল, ডিবিসি নিউজের মো. ফজলুর রহমান, হবিগঞ্জ টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আব্দুল হালীম, মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের প্রতিনিধি চৌধুরী মাসুদ আলী ফরহাদ, একাত্তর টেলিভিশনের প্রতিনিধি শাকিল চৌধুরী, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরের প্রতিবেদক পাভেল রহমান এবং দৈনিক ইত্তেফাক অনলাইনের প্রতিবেদক ইফতেয়ার রিফাত উপস্থিত ছিলেন।

Comments