ফরিদপুরে এ কে আজাদের সমর্থকের ওপর হামলা, আহত ২

এর আগে, গতকাল রাতে দয়ারামপুর বাজারে নৌকার প্রার্থী শামীম হকের নির্বাচনী ক্যাম্পে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।
আহত দুইজনকে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে বর্তি করা হয়েছে। ছবি: সংগৃহীত

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী এ কে আজাদের ২ সমর্থকের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে নৌকার সমর্থকদের বিরুদ্ধে।

আজ শুক্রবার সকালে ফরিদপুর সদর উপজেলার নর্থচ্যানেল ইউনিয়নের গুলজার মন্ডলের ডাঙ্গি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ফরিদপুর কোতয়ালী থানার উপপরিদর্শক জাহাঙ্গীর হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আহতরা হলেন-ওই গ্রামের আব্দুল আজিজ শেখ (৬৫) ও সিদ্দিক শেখ (২৫)। তারা ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

হামলার শিকার এ কে আজাদের ঈগল প্রতীকের সমর্থক সিদ্দিক শেখ ডেইলি স্টারকে বলেন, 'সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে আমাদের নির্বাচনী ক্যাম্প অফিসে যাচ্ছিলাম। পথে হঠাৎ নৌকার কর্মী হালিম শেখ আমাকে এ কে আজাদের নির্বাচন করি বলে গালমন্দ করে। আমাকে বলে, আমি যেন ঈগলের নির্বাচন না করি। এ কথা বলেই সে আমাকে মার শুরু করে, কিল, ঘুষি, লাথি মেরে মাটিতে ফেলে লাথি দেয়।'

'কাকা আব্দুল আজিজ শেখ আমাকে রক্ষা করতে এলে, তারা তাকেও মারধর করে,' বলেন তিনি।

আহত আব্দুল আজিজ শেখ ডেইলি স্টারকে বলেন, 'নর্থচ্যানেল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মোফাজ্জেল হোসেনের আদেশে ৭-৮ জন আমাদের ওপর হামলা করে।'

হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে দিয়ে চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মোফাজ্জেল হোসেন ডেইলি স্টারকে বলেন, 'ওই এলাকায় কিছুদিন আগে একটি বাল্যবিয়ের ঘটনায় সিদ্দিক জড়িত ছিল। তাই আজ সকালে সিদ্দিককে ডেকে দুইটি থাপ্পড় দেয় হালিম। কিন্তু পরে তা এ কে আজাদ আর শামীম হকের সমর্থকদের মধ্যে হয়েছে বলে প্রচার করা হয়। আমি সকালেই পুলিশকে জানিয়েছি।'

ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসা কর্মকর্তা শাহিনুল ইসলাম ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আহতদের শরীর ও মাথায় কিল-ঘুষির আঘাত আছে। মাথার এক্স-রে করতে দেওয়া হয়েছে।'

উপপরিদর্শক জাহাঙ্গীর হোসেন ডেইলি স্টারকে বলেন, 'হামলার খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেছি। স্থানীয়রা জানিয়েছে, হালিম শেখ নৌকার সমর্থক, আর সিদ্দিক শেখ ঈগলের সমর্থক। সিদ্দিক শেখ কিছুদিন আগে ঈগলের পক্ষে যোগ দেন। এ নিয়ে চাচা-ভাতিজার মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে দুইজন কিলঘুষি দিয়েছে।'

জানতে চাইলে কোতয়ালী থানার ওসি শহিদুল ইসলাম ডেইলি স্টারকে জানান, এ ঘটনায় আজ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত থানায় কেউ কোনো অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

এর আগে, গতকাল রাতে এ আসনের মাচ্চর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের দয়ারামপুর বাজারে নৌকার প্রার্থী শামীম হকের নির্বাচনী ক্যাম্পে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।

বৃহস্পতিবার রাত ১২টা থেকে শুক্রবার ভোরের মধ্যে কোনো সময়ে এ ঘটনা ঘটে।

আগুনে ওই ক্যাম্পে শামীম হকের কয়েকটি পোস্টার, একটি ব্যানার, একটি চেয়ার ও টেবিল এবং পর্দার কিছু অংশ পুড়ে যায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওসি মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, 'পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

Comments

The Daily Star  | English

BNP revamping party, wings

The BNP has started reorganising the party to inject vigour and form a strong base to relaunch its anti-government movement.

5h ago