দগ্ধ ওমর ফারুকের দিকে তাকাতে পারছেন না মা নুরুন্নাহার

১৬ বছর বয়সী ওমর ফারুক, পেশায় ট্রাকের হেল্পার। গত শনিবার রাতে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোর অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে এখন তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
ট্রাকের হেল্পার ওমর ফারুকের মা নুরুন্নাহার বেগম। ছবি: সঞ্জয় কুমার বড়ুয়া/ স্টার

১৬ বছর বয়সী ওমর ফারুক, পেশায় ট্রাকের হেল্পার। গত শনিবার রাতে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোর অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে এখন তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

গতকাল রোববার রাতে হাসপাতালে গিয়ে দেখা হয় ওমর ফারুকের মা নুরুন্নাহার বেগমের সঙ্গে। তিনি দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, তাদের বাড়ি চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে। ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে তিনি বাড়ি থেকে ছুটে এসেছেন।

ছেলের কোনো খোঁজ পেয়ে যান বিভিন্ন হাসপাতালে। পরে চমেক হাসপাতালে ছেলেকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পান।

তিনি বলেন, 'ছেলেকে পেয়েছি। কিন্তু, তার দিকে তাকাতে পারছি না।'

আগুনে ওমর ফারুকের শরীরের বিভিন্ন অংশ পুড়ে গেছে বলে জানান তিনি।

তিনি আরও জানান, ওমর ফারুক যে ট্রাকে কাজ করত সেটার ওই ডিপোতে যাতায়াত ছিল। গত রোজার পর সে ওই কাজে যোগ দিয়েছিল।

গত শনিবার সন্ধ্যায় তারা ট্রাক নিয়ে বিএম কনটেইনার ডিপোতে গিয়েছিল বলে জানান ফারুকের মা।

তিনি বলেন, 'রাতে শুনি ডিপোতে আগুন লেগেছে। ছেলের খবর নিতে গিয়ে পেলাম না। পরে হাসপাতালে এসে পেয়েছি।'

বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৯ জন মারা গেছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।

তাদের মধ্যে ১৩ জনের পরিচয় নিশ্চিতের পর পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

আহতদের মধ্যে ১৬৩ জন চমেক, জেনারেল হাসপাতাল ও বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

Comments